শারীরিক শিক্ষা | নবম-দশম শ্রেণী | অধ্যায়-০৯ | সৃজনশীল প্রশ্নোত্তর-০১

শারীরিক শিক্ষা | নবম-দশম শ্রেণী | অধ্যায়-০৯ | সৃজনশীল প্রশ্নোত্তর-০১

∎ প্রশ্ন ০১: আন্তঃস্কুল সাঁতার প্রতিযোগিতায় সাব্বির অংশগ্রহণ করে। সে দেহকে পানির উপরিভাগে সমান্তরাল রেখে দুই হাত মাথার সামনে লম্বা করে ফেলে দুই হাত দিয়ে দুই পাশে পানি কেটে এগুতে থাকে এবং মুখ পানি থেকে উপরে উঠিয়ে শ্বাস নেওয়ার চেষ্টা করে। প্রতিযোগিতায় সে প্রথম হতে পারেনি। শারীরিক শিক্ষক তাকে অনুশীলনের মাধ্যমে সাঁতারে ভালো করার দু'টি শর্ত পূরণ করতে বলেন এবং দক্ষতা বাড়াতে বলেন।

ক. টর্সো কী? 
খ. মাটিতে ভর দিয়ে উপরে উঠাকে কী বলে? ব্যাখ্যা কর। 
গ. সাব্বির সাঁতারের কোন ইভেন্টে অংশগ্রহণ করে? ব্যাখ্যা কর। 
ঘ. কঠোর অনুশীলনের মাধ্যমে প্রথম হওয়া সম্ভব- উদ্দীপকের আলোকে বিশ্লেষণ কর।

➲ ১নং প্রশ্নের উত্তর 

ক. শরীরের নাভী থেকে গলকণ্ঠ পর্যন্ত অংশ হচ্ছে টর্সো। দৌড় প্রতিযোগিতায় ফিনিশিং ফিতায় টর্সো আগে স্পর্শ করতে হয়।

খ. মাটিতে ভর দিয়ে উপরে উঠাকে টেক অফ বলে। দীর্ঘ লাফে মাটি ছেড়ে উপরে ওঠার জন্য কাঠের তৈরি একটি টেক অফ বোর্ড থাকে এ বোর্ডটি ৪ ফুট লম্বা, ৮ ইঞ্চি চওড়া ও ৪ ইঞ্চি পুরু হয়। উপরিভাগে সাদা রং দিতে হয়। এ বোর্ডের উপর পা দিয়ে শূন্যে লাফিয়ে উঠাই হচ্ছে টেক অফ। টেক অফ ভালো হলে বেশি দূরত্ব অতিক্রম করা যায়।

গ. আন্তঃস্কুল সাঁতার প্রতিযোগিতায় সাব্বির তার দেহকে পানির উপরিভাগের সমান্তরালে রেখে দুই হাত মাথার সামনে লম্বা করে ফেলে দুই হাত দিয়ে দুই পাশে পানি কেটে এগুতে থাকে। সে মুখ পানি থেকে উপরে উঠিয়ে শ্বাস নেওয়ার চেষ্টা করে। অর্থাৎ সাব্বির ব্রেস্ট স্ট্রোক বা বুক সাঁতার ইভেন্টে অংশগ্রহণ করে। নিচে ব্রেস্ট স্ট্রোক বা সাঁতার সম্পর্কে বর্ণনা করা হলো :
  • দেহের অবস্থান : দেহ থাকে পানির উপরিভাগের সমান্তরালে। দেহের পিছনের অংশ কিছুটা পানির মধ্যে থাকে। মাথা থাকে পানির উপরে। হাতর ও পায়েল কাজের শেষে শরীর যখন সামনে এগোয় তখন নাক ও মুখ পানির কিছুটা নিচে যায়।
  • পায়ের কাজ : দুই পাকে এক সাথে রাখতে হয়। দুই হাত মাথার সামনে লম্বা করে ফেলে দুই হাত দিয়ে শরীরের দুইপাশে পানি কেটে টেনে আনতে হয়। এ সময় দু হাঁটু ভাঁজ করে পানির নিচে নিতে হয়, আর দু' গোড়ালি এক সাথে কোমরের কাছাকাছি এসে সজোরে পানিতে ধাক্কা দিতে হয়।
  • হাতের কাজ : দুই হাত এক সাথে সামনে প্রসারিত করতে হয়। দুই হাত এক সাথে পানি কেটে শরীরের দু'দিকে আসার সময় কনুই সামান্য ভাজ করতে হয়। পানি কেটে আসার পর আবার মুখের সামনে দুই হাত একত্রিত করে সামনে নিতে হয়। এ সময় নাক, মুখ ও কপালের কিছুটা পানির মধ্যে নিতে হয়।
  • শ্বাস প্রশ্বাস : মুখের সামনে দুই হাত প্রসারিত করার পর যখন শরীরের দু'পাশে পানি কেটে আসে তখন মুখ পানি থেকে উপরে উঠিয়ে শ্বাস নিতে হয় এবং পানির মধ্যে নিঃশ্বাস ছাড়তে হয়।

ঘ. আন্তঃস্কুল সাঁতার প্রতিযোগিতায় সাব্বির ব্রেস্ট স্ট্রোক বা বুক সাঁতার ইভেন্টে অংশগ্রহণ করে। কিন্তু সে প্রতিযোগিতায় প্রথম হতে পারে নি। কারণ তার মধ্যে কিছু কৌশল ও কঠোর অনুশীলনের অভাব ছিল। শারীরিক শিক্ষক তাকে অনুশীলনের মাধ্যমে সাঁতারে ভালো করার যে দুটি শর্ত পূরণ করতে বলেন এবং দক্ষতা বাড়াতে বলেন তা নিম্নরূপ :

শারীরিক শক্তি : সাঁতারে শারীরিক শক্তির মধ্যে সবচেয়ে বেশি প্রয়োজন হাতের শক্তি, শরীরের নমনীয়তা, দম, হাত ও কাঁধের মুভমেন্টের দক্ষতা বৃদ্ধি । সাঁতারে ভালো করতে হলে উক্ত দক্ষতাগুলো অর্জন করতে হয়।

কলাকৌশলের পারদর্শিতা অর্জনের দক্ষতা : সাঁতারের ইভেন্টগুলো পিস্তলের আওয়াজের সাথে সাথে শুরু করতে হয় তাই রি-অ্যাকশন টাইম বা প্রতিক্রিয়া ভালো হতে হয়। স্বল্প দূরত্বের সাঁতারের জন্য আরম্ভ খুবই গুরুত্বপূর্ণ। সমাপ্ত রেখা স্পর্শ করার দক্ষতাও অত্যন্ত জরুরি। সাঁতারে ভালো করতে হলে নিয়মমাফিক স্পর্শ করার দক্ষতা অর্জন করতে হবে।

সাব্বিরকে সাঁতার প্রতিযোগিতায় প্রথম হতে হলে শারীরিক শিক্ষকের উপর্যুক্ত শর্তগুলো পূরণ করতে হবে এবং দক্ষতা বাড়াতে হবে। আর এ দক্ষতা সে অর্জন করতে পারবে কঠোর অনুশীলনের মাধ্যমে। কেননা কঠোর অনুশীলনের মাধ্যমে সফল হওয়া সম্ভব। 

সুতরাং কঠোর অনুশীলনের মাধ্যমে সাব্বিরের প্রথম হওয়া সম্ভব।

0 Comment "শারীরিক শিক্ষা | নবম-দশম শ্রেণী | অধ্যায়-০৯ | সৃজনশীল প্রশ্নোত্তর-০১"

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

Top Article Advertisement

Middle Advertisement Article 1

Middle Advertisement Article 2

Advertisement Below Article