শারীরিক শিক্ষা | নবম-দশম শ্রেণী | অধ্যায়-০৮ | সৃজনশীল প্রশ্নোত্তর-০১

শারীরিক শিক্ষা | নবম-দশম শ্রেণী | অধ্যায়-০৮ | সৃজনশীল প্রশ্নোত্তর-০১

∎ প্রশ্ন ০১: মাঠে ক্রিকেট খেলার সময় বোলার ব্যাটসম্যান মনিরের বিরুদ্ধে বল করে। বলটি ব্যাটসম্যানের পায়ে লাগলে বোলারসহ কয়েকজন সমস্বরে আউটের আবেদন করে। কিন্তু আম্পায়ার মাথা নেড়ে খেলা চালিয়ে যাওয়ার নির্দেশ দেন।  ১০ম ওভারে নতুন র‍্যাটসম্যান শাকিল তার প্রথম বলটি খেলতে গেলে বল সরাসরি স্ট্যাম্পে লেগে বেল পড়ে যায় কিন্তু আম্পায়ার ডান হাত প্রসারিত করে সংকেত দেখালে ফিল্ডারদের মধ্যে হতাশা লক্ষ করা যায়। 

ক. বাই রান কাকে বলে? 
খ. ডেলিভারি কোন কৌশলের অংশ? ব্যাখ্যা কর। 
গ. উদ্দীপকে সমস্বরে আউটের জন্য আবেদন করার কারণটি ব্যাখ্যা কর। 
ঘ. আম্পায়ারের দ্বিতীয় সিদ্ধান্তটির যৌক্তিকতা বিশ্লেষণ কর।

➲ ১নং প্রশ্নের উত্তর 

ক. বল ব্যাটসম্যানের ব্যাটের বা দেহের কোথাও স্পর্শ না করে অতিক্রম করার সুযোগে সংগৃহীত রানকে বাই রান বলে।

খ. ডেলিভারি হচ্ছে ক্রিকেট খেলার বোলিং অংশ অন্যতম প্রধান কৌশল। রান আপের শেষ পর্যায়ে এসে হাত থেকে বল ছেড়ে দেওয়াকে ডেলিভারি বলে। একজন ডানহাতি বোলারকে বলের ডেলিভারির পূর্ব মুহূর্তে বাম পায়ের উপর লাফ দিয়ে শরীরকে পাশের দিকে ঘুরিয়ে নিতে হয় এবং এর সাথে ডান পা সামনে, ডান হাত মুখের কাছাকাছি, বাম হাত সোজা উপরের দিকে ও চোখের দৃষ্টি ব্যাটসম্যানের উপর থাকতে হয়।

গ. উদ্দীপকে বোলারসহ কয়েকজন সমস্বরে এল.বি.ডব্লিউ আউটের জন্য আবেদন করেন। নিচে এর কারণ ব্যাখ্যা করা হলো : যদি লেগস্ট্যাম্পের বাইরে বল ছাড়া কোনো বল ব্যাটসম্যানের পায়ে বা শরীরে প্রতিহত না হলে সরাসরি স্ট্যাম্পে আঘাত করতো মনে হলে, বোলার ও ফিল্ডারদের আবেদনের প্রেক্ষিতে আম্পায়ার এল.বি.ডব্লিউ আউট দেন। বোলারের করা বলটি ব্যাটসম্যান মনিরের পায়ে লাগে। বোলার ও ফিল্ডারদের মনে হয়েছে বলটি পায়ে লেগে প্রতিহত না হলে সরাসরি স্ট্যাম্পে আঘাত করতো। তাই তারা সমস্বরে এল.বি.ডব্লিউ আউটের জন্য আবেদন করে। কিন্তু আম্পায়ার মাথা নেড়ে খেলা চালিয়ে যাওয়ার নির্দেশ দেন অর্থাৎ তাদের আউটের আবেদন যুক্তিসঙ্গত মনে করেননি। কারণ বোলারের করা বলটি ছিল লেগ স্ট্যাম্পের বাইরে অথবা আম্পায়ারের মনে হয়নি বলটি ব্যাটসম্যান মনিরের পায়ে লেগে প্রতিহত না হলে সরাসরি স্ট্যাম্পে আঘাত করতো। যদিও সমস্বরে আউটের আবেদনের ফলে ব্যাটসম্যানের মধ্যে দুর্বলতা সৃষ্টি হতে পারে।

ঘ. ১০ম ওভারে নতুন ব্যাটসম্যান শাকিল তার প্রথম বল খেলতে গিয়ে বল সরাসরি স্ট্যাম্পে লেগে বেল পড়ে গেলেও আম্পায়ার আউটের সংকেত না দেখিয়ে ডান হাত প্রসারিত করে নো-বলের সংকেত দেখান। এর ফলে ব্যাটসম্যান শাকিল নিশ্চিত আউট হওয়া থেকে রক্ষা পান কারণ নো-বলে বোল্ড আউট হয় না। এতে ফিল্ডারদের মধ্যে হতাশা দেখা যায়। আম্পায়ার বলটির ডেলিভারি পদ্ধতির বৈধতা সম্পর্কে অসন্তুষ্ট হওয়ার কারণে নো-বল দেন। 
নিচের কারণগুলোর যেকোনোটির জন্য আম্পায়ার নো-বলের সংকেত দিয়েছেন:
  • বোলারের কনুই ভেঙ্গে গিয়েছিল। 
  • ডেলিভারির স্ট্রাইড (পদক্ষেপ) পপিং ক্রিজ অতিক্রম করেছিল। 
  • বোলার বল করার সময় উইকেটের কোনো ক্ষতি করেছিল। 
  • বল পিচের অর্ধেকের এপাশে পড়েছিল। 
  • নিয়ম মাফিক ফিল্ডার অবস্থান করছিল না।

0 Comment "শারীরিক শিক্ষা | নবম-দশম শ্রেণী | অধ্যায়-০৮ | সৃজনশীল প্রশ্নোত্তর-০১"

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

Top Article Advertisement

Middle Advertisement Article 1

Middle Advertisement Article 2

Advertisement Below Article